মাসের শেষ: ক্রেডিট কার্ড সহায়

টাকা ট্রান্সফার করার আরেকটি উপায় হল ফোনকল। কিছু ক্রেডিট কার্ড কোম্পানি ফোন কলের মাধ্যমে ফান্ড ট্রান্সফারের অফার করে।

প্রতি মাসের শেষে 28 থেকে পরের মাসের 1 তারিখ- এই সময় টা আপনার কাছে খুব বড় কোনও বিষয় নাও হতে পারে। কিন্তু মনীষার মনে হয় এই 3-4 দিন যেন কাটতেই চায় না। আসলে মাস শেষ হতে না হতেই মনীষার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ব্যালেন্স শেষ হয়ে যায়। এখন সমস্যা হল, প্রতি মাসের 28 তারিখে SIP অটোমেটিক ডেবিট হয়ে যায়। এই জন্য মণীষাকে বেশ কয়েকবার ধারও নিতে হয়েছে। শুধু তাই নয়, ব্যালেন্স কম থাকায় দু’বার ব্যাঙ্ক 500 টাকা জরিমানাও করেছে। তাছাড়া, যেসব পেমেন্ট গুলি তিনি মিস করে গিয়েছেন, তার প্রভাব ক্রেডিট স্কোরের উপরও পড়বে। এটাও মণীষার চিন্তার কারণ।

একজন বন্ধু এসব শুনে তাঁকে বলে যে, সে তাঁর ক্রেডিট কার্ড থেকে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করতে পারে। মণীষা যেহেতু এই বিষয়টি সম্পর্কে কিছুই জানত না তাই সে অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করল এটা আদৌ সম্ভব কি না। এর উত্তর হল হ্যাঁ। আপনি আপনার ক্রেডিট কার্ড থেকে আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করতেই পারেন। তবে মনে রাখবেন এর সুবিধা যেমন আছে তেমন অসুবিধাও আছে।

আজকের এই ভিডিওতে আমরা এই বিষয়েই বিস্তারিত আলোচনা করব।

প্রশ্ন হল, আপনি কীভাবে ক্রেডিট কার্ড থেকে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করতে পারেন? আপনি সরাসরি ট্রান্সফার করতে পারেন। অনেক ব্যাঙ্ক আপনাকে নিজস্ব ব্যাঙ্কিং অ্যাপ বা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার ক্রেডিট কার্ড থেকে টাকা সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করার অনুমতি দেয়। খেয়াল রাখবেন, যে বিভিন্ন ব্যাঙ্কে বিভিন্ন daily transfer limit রয়েছে। তাই বিস্তারিত জানার জন্য আপনার ব্যাঙ্কের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

আপনি নেট ব্যাঙ্কিং পরিষেবা ব্যবহার করে টাকা ট্রান্সফার করতে পারেন। যদি আপনার ব্যাঙ্ক নেট ব্যাঙ্কিং পরিষেবা প্রদান না করে তাহলে আপনার অ্যাকাউন্টে লগ ইন করুন, ‘ক্রেডিট কার্ড’ ক্যাটাগরিতে গিয়ে ‘ট্রান্সফার’ অপশনটি বেছে নিন। আপনি আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে যত টাকা ট্রান্সফার করতে চান সেই পরিমাণটি লিখুন। instruction ফলো করুন এবং লেনদেন সম্পূর্ণ করুন।

টাকা ট্রান্সফার করার আরেকটি উপায় হল ফোনকল। কিছু ক্রেডিট কার্ড কোম্পানি ফোন কলের মাধ্যমে ফান্ড ট্রান্সফারের অফার করে। আপনাকে ক্রেডিট কার্ড কোম্পানিকে প্রয়োজনীয় তথ্য দিতে হবে। তারপরে আপনি ফান্ড ট্রান্সফারের জন্য রিকোয়েস্ট করতে পারেন। সেই পরিমাণ নিশ্চিত করার পরে আপনি ট্রান্সফার প্রসেস এগিয়ে যেতে পারেন।

এখন শেষ পদ্ধতির জন্য আপনি একটি চেক ফিলাপ করতে পারেন। সাধারণত ক্রেডিট কার্ড কোম্পানি চেকবুক দেয় না। আপনাকে অনুরোধ করতে হবে। এই পদ্ধতিটি ‘চেক টু সেল্ফ’ নামে পরিচিত। চেকে প্রাপক হিসাবে ‘সেলফ’ লিখুন, অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য অন্তর্ভুক্ত করুন। এটি ব্যাঙ্কে জমা দিন। চেক ক্লিযার হয়ে গেলে টাকা আপনার অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার হয়ে যাবে।

ফান্ড ট্রান্সফার করার জন্য ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে জরুরী পরিস্থিতিতে আপনার প্রয়োজনীয় মেটাতে পারেন। তবে এর কিছু ত্রুটি রয়েছে। এক্ষেত্রে আপনাকে সচেতন হতে হবে। ক্রেডিট কার্ডের প্রাথমিক উদ্দেশ্য হল direct payments এবং ঘন ঘন ফান্ড ট্রান্সফার শপিং এবং রিওয়ার্ড পয়েন্ট পেতেও এবং তা ব্যবহারে বাধা দিতে পারে।

আরেকটি বিষয় হল ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার একটি লিমিট পেরিয়ে গেলে, আয়কর বিভাগ আপনার লেনদেনগুলি ভেরিফাই করতে পারে। ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে 2 লক্ষ টাকার বেশি বার্ষিক খরচের তথ্য IT বিভাগে প্রকাশ করা হয়। ঘন ঘন টাকা ট্রান্সফার IT বিভাগের নজরে পড়তে পারেন। আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ফান্ড ট্রান্সফার করা ক্রেডিট লিমিটের একটি বড় অংশ নষ্ট করে ফেলবে। এটি নগদ তোলা হিসাবে দেখানো হবে। ক্রেডিট কার্ডের বিল বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বকেয়া সুদও বাড়বে। যেকোনও পেমেন্ট ডিফল্ট আপনার ক্রেডিট স্কোরে নেগেটিভ প্রভাব ফেলতে পারেন। এর প্রভাব ক্রেডিট হিস্টরিকেও প্রভাবিত করতে পারে। এটি ভবিষ্যতে ঋণ নেওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যা তৈরী করবে।

তাই জরুরী পরিস্থিতিতে ফান্ড ট্রান্সফার করা ঠিক আছে। তবে এটি অভ্যাস করা যুক্তিযুক্ত নয়। এই ধরনের অত্যধিক ট্রান্সফার আপনাকে সমস্যায় ফেলতে পারে, তাই বিচক্ষণতার সঙ্গে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করা অপরিহার্য।

Published: February 19, 2024, 14:03 IST

পার্সোনাল ফাইনান্স বিষয়ের সর্বশেষ আপডেটের জন্য ডাউনলোড করুন Money9 App