25 হাজার পর্যন্ত বকেয়া করে মিলবে মুক্তি

ট্যাক্স ডিমান্ডের পরিস্থিতি জানতে, করদাতাদের তাঁদের আইডি এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে আয়কর ই-ফাইলিং ওয়েবসাইটে লগ ইন করতে হবে।

সরকার 25 হাজার টাকার কম বকেয়া করের দাবি প্রত্যাহার করা শুরু করেছে। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন গত পয়লা ফেব্রুয়ারি পেশ করা অন্তর্বর্তী বাজেটে ছোট করদাতাদের জন্য এই সুবিধা ঘোষণা করেছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অমীমাংসিত করের দাবি নিয়ে যে মামলা চলেছে তা তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিলেন। করের দাবি মকুবের পরিমাণ সম্পর্কে বাজেটে কী ঘোষণা হয়েছিল তা দেখা যাক।

অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন অন্তর্বর্তী বাজেটে এই সুবিধা সেই সব ব্যক্তিদেরই দিয়েছেন যাঁদের বকেয়া কর ছিল 2014-15 পর্যন্ত। সীতারমন বলেছেন, প্রচুর পরিমাণে ছোট এবং বিতর্কিত করের দাবি রয়েছে। এর মধ্যে অনেক ক্ষেত্রেই বকেয়া কর 1962 সালের আগের সময়ের। এতে সৎ করদাতাদের অসুবিধা হয়েছে। এটি পরবর্তী বছরগুলিতে অর্থ ফেরতের ক্ষেত্রে অসুবিধা সৃষ্টি করেছে। অর্থমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেছেন যে এই পদক্ষেপের ফলে 1 কোটি করদাতা উপকৃত হবেন।

অর্থমন্ত্রী তাঁর বাজেট বক্তৃতায় বলেছেন যে তিনি 2010 সালের 25,000 টাকা, 2011 থেকে 2015 সালের জন্য 10,000 টাকা পর্যন্ত বকেয়া প্রত্যক্ষ করের যে দাবি তা ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সহজ শর্তে, এই সময়ের মধ্যে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ পর্যন্ত বিতর্কিত করের দাবি মকুব করা হয়েছে। প্রত্যক্ষ কর বোর্ড এই নিয়ে একটি নির্দেশিকাও জারি করেছে।

এই নির্দেশে সর্বোচ্চ এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত কর মকুবের সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে। 31 জানুয়ারী, 2024 পর্যন্ত এই বকেয়া কর মকুবের আওতায় আসবে। আয়কর, সম্পত্তি কর এবং গিফট ট্যাক্স এর আওতাভুক্ত রয়েছে। 1 লক্ষ টাকার সীমার মধ্যে কর, সুদ, জরিমানা, ফি, সেস এবং সারচার্জের অন্তর্ভুক্ত।

CBDT তার আদেশে বেশ কিছু বিষয় স্পষ্ট করেছে। এগুলি হল-
এই ছাড় TDS বা TCS-এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়।
এটি করদাতাদের কোনো ক্রেডিট বা রিফান্ড দাবির অধিকার দেয় না।
এটি করদাতার বিরুদ্ধে চলতে থাকা, শুরু হওয়া বা সম্ভাব্য অপরাধমূলক আইনি প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করবে না।
এটি আয়কর আইনের অধীনে কোনও ছাড় প্রদান করবে না।

CBDT আদেশ মোতাবেক, যাঁরা যোগ্যতার মানদণ্ড পূরণ করবেন তাদের পুরানো করের দাবি মকুব এবং বাতিল করা হবে।
করদাতারা আয়কর ই-ফাইলিং-এর ওয়েবসাইট www.incometax.gov.in-এ লগ ইন করে তাঁদের অবস্থান সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা পাবেন।

ট্যাক্স ডিমান্ডের পরিস্থিতি জানতে, করদাতাদের তাঁদের আইডি এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে আয়কর ই-ফাইলিং ওয়েবসাইটে লগ ইন করতে হবে। তারপরে তারা “পেন্ডিং অ্যাকশন” এর অধীনে “Response to Outstanding Demand” অপশনে নিয়ে ট্যাক্স ডিমান্ডের পরিস্থিতি জানতে পারবেন।

রাজস্ব সচিব সঞ্জয় মালহোত্রার দেওয়া তথ্য অনুসারে, 2.68 কোটি ট্যাক্স ডিমান্ডে মোট 35 লক্ষ কোটি টাকা আটকে রয়েছে। এর মধ্যে 2.1 কোটি দাবির অঙ্ক 25,000 টাকার কম। এর মধ্যে 58 লক্ষ মামলা 2009-10 আর্থিক বছরের এবং অবশিষ্ট 53 লক্ষ মামলা 2010-11 থেকে 2014-15 সময়ের মধ্যে।

মালহোত্রা বলেছেন, 1.1 কোটি ঘটনার মধ্যে এই ডিমান্ডের পরিমাণ 25,000 এবং 10,000 টাকার মধ্যে। এই ধরনের মামলার ক্ষেত্রে মোট টাকার মূল্য 3,500 কোটি টাকার কম। সরকারের এই সিদ্ধান্ত যে দেশের ক্ষুদ্র করদাতাদের স্বস্তি দেবে তা বলাই যায়।

আপনার যদি ট্যাক্স ডিমান্ড নিয়ে কোনও প্রশ্ন বা উদ্বেগ থাকে, তাহলে আপনি আপনার সমস্যার সমাধান পেতে 1800 309 0130 নম্বরে কল করতে পারেন অথবা taxdemand@cpc.incometax.gov.in-এ ইমেল করতে পারেন।

Published: March 8, 2024, 14:30 IST

পার্সোনাল ফাইনান্স বিষয়ের সর্বশেষ আপডেটের জন্য ডাউনলোড করুন Money9 App