এপ্রিলে বাড়ল খাদ্য মুদ্রাস্ফীতি, চিন্তায় কেন্দ্র

EPFO তার সদস্যদের জন্য সুখবর নিয়ে এসেছে। EPFO-এর অছি পরিষদ শিক্ষা, বাড়ি এবং বিবাহের জন্য টাকা তোলার ক্ষেত্রে নিয়মে বড় পরিবর্তন করেছে। অটো ক্লেম অ্যাডভান্স সেটেলমেন্ট এখন অটোমেটিক মোডে নিষ্পত্তি করা যাবে। এই ক্ষেত্রের সীমা 50,000 টাকা থেকে বাড়িয়ে 1 লক্ষ টাকা করা হয়েছে। যদি অটো মোডের মাধ্যমে কোনও অগ্রিমের দাবি নিষ্পত্তি না হয়, তাহলে তা প্রত্যাখ্যান না করে দ্বিতীয়বার যাচাই করে তা অনুমোদন করা হবে।

alternate

 

খুচরো মুদ্রাস্ফীতি কমলেও এপ্রিলে বেড়েছে খাদ্য মুদ্রাস্ফীতির হার। এটাই এখন সরকারের মূল মাথাব্যাথার বিষয়। এপ্রিলে খুচরা মূল্যস্ফীতি 4.83%-এ নেমে এসেছে। মার্চ মাসে মুদ্রাস্ফীতির হার ছিল 4.85%। এটি গত 11 মাসের মধ্যে সবচেয়ে কম। এর আগে 2023 সালের জুনে এই হার ছিল 4.81%। তবে এপ্রিল মাসে খাবারের দাম বেড়েছে। এই ক্ষেত্রে মুদ্রাস্ফীতির হার গত মাসে ছিল 8.52%, তা এপ্রিলে বেড়ে হয়েছে 8.78%। গ্রামীণ মুদ্রাস্ফীতির হার 5.45% থেকে সামান্য কমে হয়েছে 5.43% এবং শহুরে মুদ্রাস্ফীতির হার 4.14% থেকে 4.11%-এ নেমে এসেছে।

EPFO তার সদস্যদের জন্য সুখবর নিয়ে এসেছে। EPFO-এর অছি পরিষদ শিক্ষা, বাড়ি এবং বিবাহের জন্য টাকা তোলার ক্ষেত্রে নিয়মে বড় পরিবর্তন করেছে। অটো ক্লেম অ্যাডভান্স সেটেলমেন্ট এখন অটোমেটিক মোডে নিষ্পত্তি করা যাবে। এই ক্ষেত্রের সীমা 50,000 টাকা থেকে বাড়িয়ে 1 লক্ষ টাকা করা হয়েছে। যদি অটো মোডের মাধ্যমে কোনও অগ্রিমের দাবি নিষ্পত্তি না হয়, তাহলে তা প্রত্যাখ্যান না করে দ্বিতীয়বার যাচাই করে তা অনুমোদন করা হবে। পাশাপাশি, EPFO ​​সদস্যরা বাড়ি তৈরি, সন্তানের বিবাহ কিংবা উচ্চশিক্ষার জন্য অতি অল্প সময়ের মধ্যে টাকা তুলতে পারবেন। জানা গিয়েছে ক্লেম করার মাত্র 3 থেকে 4 দিনের মধ্যেই আপনি হাতে টাকা পাবেন।

FMCG ডিস্ট্রিবিউটরস অ্যাসোসিয়েশন দেশের খুচরো ব্যবসায়ীদের ব্র্যান্ডেড মশলা মজুত এড়াতে পরামর্শ দিয়েছে। কারণ ভবিষ্যতে তাদের এই বিক্রি হ্রাস পেতে পারে। অল ইন্ডিয়া কনজিউমার প্রোডাক্ট ডিস্ট্রিবিউটরস ফেডারেশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে এই মশলাগুলি নিয়ে FSSAI তদন্ত করছে। এই কারণে, এই মশলার ব্র্যান্ডগুলির বিক্রি ব্যাপক হ্রাস পেতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে খুচরো ব্যবসায়ীদের সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে এবং অতিরিক্ত মজুত এড়াতে হবে। প্রসঙ্গত, MDH এবং এভারেস্টের একাধিক মশলায় সীমার চেয়ে বেশি ইথিলিন অক্সাইড পাওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

আধার, UPI এবং ONDC-র মতো ডিজিটাল পরিষেবাগুলিকে এক প্ল্যাটফর্মে উপলব্ধ করার জন্য সরকার একটি ইউনিফাইড পোর্টাল চালু করার পরিকল্পনা করছে। এই পোর্টালটি চালু করতে এবং বিভিন্ন বিভাগের ডিজিটাল পরিষেবাগুলিকে এই প্ল্যাটফর্মে আনার দায়িত্ব ইলেক্ট্রনিক্স এবং টেকনোলজি মন্ত্রকের হাতে দেওয়া হবে। সহজেই যাতে এক জায়গায় সব পরিষেবা পাওয়া যায় সেই কারণেই এই উদ্যোগ। বর্তমানে, কেন্দ্রীয় এবং রাজ্য সরকারের স্কিমগুলির জন্য আলাদা আলাদা অ্যাপ এবং পোর্টাল রয়েছে। ফলে বিবিধ সুবিধা পেতে বিভিন্ন অ্যাপ বা পোর্টালে যাওয়ার প্রয়োজন হয় ব্যবহারকারীদের। সেই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতেই এই পদক্ষেপ। এমতাবস্থায়, সমস্ত সরকারি ডিজিটাল পরিষেবা এক জায়গায় পাওয়া গেলে অনেক সুবিধা হবে। এতে খরচ ও সময় যেমন কমবে, তেমনই সরকারি পরিষেবা আরও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া যাবে বলেই মনে করছে কেন্দ্র।

Published: May 14, 2024, 10:01 IST

এপ্রিলে বাড়ল খাদ্য মুদ্রাস্ফীতি, চিন্তায় কেন্দ্র